No Comments

বিসমিল্লাহীর রহমানীর রাহীম

আশা করি সকলে মহান আল্লাহর অশেষ রহমত ও করুণায় ভালোই আছেন। আলহামদুলিল্লাহ আমিও ভালো আছি 🙂 ওয়েবসাইট হলো বর্তমান সময়ের তথ্য আদান প্রদানের প্রাণ কেন্দ্র। ইন্টারনেটের হাত ধরে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে এখন খুব সহজেই বিশ্বের দাড়প্রান্তে মনের সকল ভাষা পৌছে দেওয়া সম্ভব। কিন্তু একটি ওয়েবসাইটের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো তার নাম অর্থাৎ ডোমেইন নেম। মূলত সাধারণ ভাষায় ডোমেইন নেম হলো ওয়েবসাইটটির ঠিকানা যা ব্যবহার করে একজন ইন্টারনেট ব্যবহারকারী সেই ওয়েবসাইটি ভিজিট করবেন। তাই একটি ওয়েবসাইটের জন্য উপযুক্ত এবং মানসম্মত ডোমেইন নির্বাচনের উপরেই অনেকটা নির্ভর করে থাকে ওয়েবসাইটির পাবলিসিটি। যাই হোক, যারা নতুন কম্পিউটার ব্যবহারকারী আশা করি তাদের জন্য এই পোষ্টটি অনেকাংশে কাজে লাগবে। আমি নিচে ধাপে ধাপে বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করছি 🙂

সহজ এবং বোধগোম্য :


আপনার ওয়েবসাইটটির জন্য সহজে মনে রাখা যায় এমন একটি নাম নির্বাচন করুন। যা আপনার পাঠকরা সহজেই মনে রাখতে পারবে। কখনোই এমন কোন নাম নির্বাচন করবেন না যা অনেক বড় এবং মনে রাখা কষ্টকর। ধরুন আপনি একটি ওয়েবসাইট খুলতে চাচ্ছেন যেখানে আপনি নতুন গাড়ি সংক্রান্ত সকল তথ্য রাখতে চান। এখন যদি আপনি সেই অনুযায়ী আপনার ডোমেইন নেম নির্বাচন করেন > car-information.com তাহলে খুব স্বাভাবিকভাবেই আপনার পাঠকরা ওয়েবসাইটটির নাম ভুলে যেতে পারে। অথবা কোন ওয়ার্ড টাইপের সময় মিসিং করে অন্য ওয়েবসাইটেও চলে যেতে পারে। যার ফলে একদিকে যেমনিভাবে আপনার পাঠক সংখ্যা কমে যাবে তেমনি ভাবে অন্যদিকে ধীরে ধীরে হারিয়ে যাবে আপনার ওয়েবসাইটের জনপ্রিয়তা। সুতরাং একটি ওয়েবসাইটের জন্য সব সময় ছোট এবং খুব সহজে মনে রাখা যায় এমন ডোমেইন নির্বাচন করা উচিত। উদাহরণস্বরূপ উপরের গাড়ির তথ্য রাখার জন্য আপনি carinfo.com নির্বাচন করতে পারেন। এর ফলে যেমনি ভাবে ডোমেইনের নামটি ছোট হয়ে যায় তেমনিভাবে ডোমেইনটি দেখলে খুব সহজেই পাঠকরা বুঝতে পারবে যে ওয়েবসাইটটিতে কী কী বিষয় সম্পর্কে জানা যাবে।

সঠিক ডোমেইন নির্বাচন :


শুধু মাত্র সহজ এবং বোধগোম্য ডোমেইন নির্বাচনেই আপনার সুষ্ঠু ডোমেইন নির্বাচন প্রকাশ পায় না। বরং ডোমেইন নাম নির্বাচনের পর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো ওয়েবসাইটের এক্সটেনশন বা TLD (টপ লেভেল ডোমেইন)। আমি .com / .net / .org / .info এর কথা বলছি। এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় যার সঠিক ব্যবহারের মাধ্যমে আপনি আপনার ডোমেইন নেমটিকে যেমনিভাবে আরো বোধগোম্য করে তুলতে পারবেন তেমনিভাবে ফুটিয়ে তুলতে পারবেন আপনার ডোমেইনের সৌন্দর্য্য। বর্তমানে সবাই .com ডোমেইন নির্বাচনে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। সোস্যাল নেটওয়ার্ক অথবা কোন প্রতিষ্ঠান সবাই .com ডোমেইন নেওয়ার জন্য একে অন্যের সাথে প্রতিযোগীতা করে থাকেন। কিন্তু এটা মোটেও উচিত বলে আমি মনে করি না। উদাহরণস্বরপ, ধরুন আপনি আপনার নামে একটি ওয়েবসাইট খুলতে চাচ্ছেন। আপনার নাম হলো রাজু। তো আপনি আপনার ডোমেইন নেম নির্বাচন করলেন raju.com। এবার আপনি সেখানে আপনার ব্যক্তিগত কথাগুলো এবং আপনার পরিচয় সেখানে রাখলেন। এবার আপনিই বলুন আপনার ডোমেইন নাম এর সাথে কি আপনার ওয়েবসাইটের কোন মিল আছে? না নেই, কেননা এটি একটি ব্যক্তিগত ওয়েবসাইট। সুতরাং এখানে .com ব্যবহার না করে .me ব্যবহার করা সর্ব উত্তম ছিল। অর্থাৎ উপরোক্ত ডোমেইনটি Raju.me হলে যদি কেউ ওয়েবসাইটটির ডোমেইন দেখে তাহলে সেই পাঠক সহজেই বুঝতে পারবে যে এটা কোন ব্যক্তিগত ওয়েবসাইট। সুতরাং এর ফলে কোন পাঠক কোন প্রকার বিভ্রান্তিতেও পড়বে না। তাহলে এবার আসুন সংক্ষেপে জেনে নেওয়া যাক প্রত্যেকটি TDL / টপ লেভেল ডোমেইন কি কি কাজে ব্যবহার করা উত্তম।

  • .com ডোমেইনটি ব্যবহার করা হয়ে থাকে কোন ব্যবসায়িক কোম্পানী কিংবা সেবা মূলক কোন প্রতিষ্ঠানকে বোঝানোর জন্য।
  • .net ডোমেইনটি মূলত ইন্টারনেট / মিডিয়া সংক্রান্ত ওয়েবসাইটের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা ভালো।
  • .org কোন অলাভজনক প্রতিষ্ঠান এর ক্ষেত্রে ব্যবহার করা উত্তম।
  • .info ডোমেইন সাধারণত এমন কোন ওয়েবসাইটের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা উচিত যা কোন তথ্য বহন করে।
  • .me সাধারণত ব্যক্তিগত ওয়েবসাইট বা প্রোফাইল তৈরীর জন্য সব চেয়ে উত্তম।
  • .edu কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইটের জন্য ব্যবহার করা হয়।
  • .gov ডোমেইনটি সরকারী কোন ওয়েবসাইটকে বোঝায়।

কান্ট্রি ডোমেইন নির্বাচন :


যদি আপনার ওয়েবসাইটটি কোন লোকাল এরিয়ার আওতায় / কোন দেশের অন্তভূক্ত হয় তাহলে সেক্ষেত্রে সেই দেশের নিজস্ব TLD নির্বাচন করা ভাল। মূলত এগুলো দেখতে অনেকটা সাব ডোমেইনের মতো। তবে ডোমেইনটি সেই দেশের জন্য একটি টপ লেভেল ডোমেইন। যেমন : itworld.com.bd হলো বাংলাদেশ থেকে পরিচালিত তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক বাংলা ভাষাভাষী মানুষের জন্য শিক্ষামূলক একটি বাংলা ব্লগ। সুতরাং এটির TLD (টপ লেভেল ডোমেইন) হলো .bd। অর্থাৎ .bd হলো বাংলাদেশের টপ লেভেল ডোমেইন। তেমনি ভাবে co.uk, co.in হলো দেশ ভিত্তিক টপলেভেল ডোমেইন। সুতরাং আপনার ওয়েবসাইটটি যদি কোন দেশের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ বজায় রাখতে চান তাহলে কান্ট্রি ডোমেইন নির্বাচন করতে পারেন।

ডোমেইন সার্চ :


নতুন কোন ডোমেইন নির্বাচন করার জন্য প্রথমে জানতে হবে যে সেই ডোমেইনটা ফাঁকা আছে কিনা। কেননা একটি ডোমেইন নিবন্ধন করা থাকলে সেই ডোমেইনটি পূনরায় নিবন্ধন করা যায় না যতক্ষন না পর্যন্ত তার তারিখ উত্তির্ণ না হয়। সুতরাং ডোমেইন যখন নির্বাচন করবেন ঠিক তখনই সাথে সাথে ডোমেইনটি ফাঁকা আছে কিনা তা পরীক্ষা করে নিবেন। আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা ব্রাউজারের এড্রেসবারে নতুন বাছাইকৃত ডোমেইনটি টাইপ করে ইন্টার দিয়ে পরীক্ষা করেন যে সেই ডোমেইনটি ফাঁকা আছে কিনা। এই কাজটি মোটেও করবেন না। ধরুন আপনি একটি ওয়েবসাইটের ডোমেইন নেম ব্রাউজারে টাইপ করে ইন্টার দিয়ে দেখলেন ব্রাউজারে লেখা আসলো “Server not found” । আপনি হয়ত খুশি মনে, মনে করবেন যে এটি ফাঁকা আছে কিন্তু আসলেই কি তা ফাঁকা আছে কিনা সেটি কিন্তু নিশ্চিত করতে পারছেন না। তাই অনেক সময় সব পরিকল্পনা করার পর দেখা যায় ওয়েবসাইটটি পার্ক করা আছে তাই ডোমেইনটা কেনা সম্ভব হচ্ছে না যার হলে আপনি একটি বিভ্রান্তিতে পড়তে পারেন। আর এই ঝামেলা থেকে সহজে রেহাই পেতে আপনি একটি খুব সহজ একটি অনলাইন টুল ব্যবহার করতে পারেন যার মাধ্যমে আপনি বুঝতে পারবেন যে সেই নামে কোন ওয়েবসাইট ফাঁকা আছে কি না। অনলাইন টুলটি হলো >> www.domai.nr

আজ এই পর্যন্তই। আশা করি সকলের উপরে আসবে। ধন্যবাদ …


আব্দুর রহিম আইটি ওয়ার্ল্ডের একজন লেখক, সম্পাদক এবং উপদেষ্টা। বর্তমানে তিনি ডিপ্লোমা ইন কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ছেন। মূলত তিনি ব্লগিং , প্রোফেশনাল ওয়েব ও গ্রাফিক্স ডিজাইন করে থাকেন। তাকে ফেসবুকে পাবেন।

You might like also

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.