1 Comments

বিসমিল্লাহীর রহমানীর রাহীম।

বিদেশ ভ্রমন করবেন? প্রয়োজন হবে পাসপোর্ট। চাকুরীতে যোগ দিবেন? কোথাও কোন কিছু রেজিষ্ট্রেশন করবেন। প্রয়োজন হতে পারে পাসপোর্ট। দৈনন্দিন জীবনের কত জায়গাতেই না গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে এই পাসপোর্ট। আমরা সবাই জানি, পাসপোর্ট শুধু দৈনন্দিন জীবনের ক্ষেত্রে যেমনি ভাবে ভূমিকা পালন করে থাকে ঠিক তেমনিভাবে বিদেশ ভ্রমনের ক্ষেত্রে সবচেয়ে প্রয়োজনীয় উপকরণ হিসেবেও কাজ করে। একমাত্র পাসপোর্টই হলো এমন একটি তথ্য আধারের বাহক যা উক্ত ব্যবহারকারীর সব তথ্য সংরক্ষন করতে সক্ষম। কিন্তু এই উপকারী পাসপোর্ট তৈরীর নিয়ম অনেকের কাছেই অজানা। তাই যাতে সবাই এই ব্যাপারে পরিষ্কার হন সেই প্রচেষ্টা আমার আজকের এই পোষ্টে।

যেভাবে নতুন পাসপোর্ট বানাবেনঃ

পাসপোর্ট অফিস থেকে ফরম সংগ্রহ করুন। নতুন একটি পাসপোর্ট বানানোর ক্ষেত্রে আপনাকে মোট তিনটি ফরম পূরণ করতে হবে। প্রত্যেক ফরমে আপনার ছবি আঠা (আইকা) দিয়ে লাগাতে হবে। মনে রাখবেন ভুলেও ষ্ট্যাপল করতে যাবেন না। ছবির উপরে এবঙ ফরমে অবস্থিত নির্দিষ্ট স্থানে প্রথম শ্রেণীর কর্মকর্তা দ্বারা সত্যায়ন করতে হবে। আর হ্যা জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি বা জন্ম সনদের ফটোকপি অবশ্যই লাগবে। এরপর ব্যাংকে টাকা জমা দিতে হবে। সাধাণত ১ মাসে পাসপোর্ট পাওয়ার জন্য ৩ হাজার টাকা এবং জরুরিতে মানে ১ সপ্তাহের মধ্যে পাসপোর্ট পেতে ৬ হাজার টাকা জমা দিতে হবে। টাকা জমার মূল রশিদ ফরমের সাথে জমা দিতে হবে। এছাড়া আপনি আপনার সুবিধার্থে টাকা জমা দেওয়ার রশিদটির ফটোপকপিও সংরক্ষণ করে রাখতে পারেন।

এবার ফরম ও টাকা জমা দেওয়ার রশিদ সহকারে পাসপোর্ট অফিসে যান। আপনার তিনটি ফরম সম্পূর্ণ প্রস্তুত এটা নিশ্চিত হলে লাইনে দাড়ান। এরপর একজন কর্মকর্তাকে দিয়ে ফরমটি অনুমোদন করাবেন। তারপর কম্পিউটার এন্ট্রির কাজ শেষ হলে কাউন্টার থেকে রশিদ সংগ্রহ করুন এবং ছবি তোলার উদ্দেশ্যে ছবি তোলার রুমে যান। আপনার রশিদটি চেক করুন। যদি কোন অংশে ভুল থাকে তাহলে ছবি তোলার রুম থেকেও তা আবার সংশোধন করতে পারবেন। এরপর থানা ও এসবি অফিসের কর্মকর্তার অনুসন্ধান রিপোর্ট পাসপোর্ট অফিসে যাওয়ার পর রশিদে উল্লেখিত সময়ে একই অফিস থেকে আপনার পাসপোর্টটি সংগ্রহ করুন। আপনার রশিদে উল্লেখিত নম্বরে এসএমএস করেও আপনার পাসপোর্টের অগ্রগতির খোঁজ খবর জানতে পারবেন।

মনে রাখবেনঃ

আগারগাঁও পাসপোর্ট অফিসের দীর্ঘ লাইনে না দাড়িয়েও আপনি পাসপোর্ট তৈরী করতে পারবেন। ঢাকা মহানগরীর কয়েকটি এলাকা মিলে একটি স্থানীয় পাসপোর্ট কেন্দ্র তৈরী হয়েছে। সে সব পাসপোর্ট অফিসে পাসপোর্ট, রিনিউ, রিপেসমেন্ট সংক্রান্ত সব তথ্য ও সেবা পাবেন। এক্ষেত্রে যারা “মালিবাগ, বাসাবো, যাত্রাবাড়ী, আরামবাগ, ফকিরাপুল” এলাকায় বাসবাস করেন তারা যেতে পারেন যাত্রাবাড়ী রায়েরবাগ পুনম সিনেমা হলের নিকস্থ পাসপোর্ট অফিসে।

যদি নতুন কিছু জানতে পারেন তাহলে আমার পরিশ্রম সার্থক।

– আব্দুর রহিম


তথ্য ও প্রযুক্তিকে সকলের হাতের মুঠোয় নিয়ে আসার আমাদের একান্ত প্রচেষ্টা। আমাদের সাথেই থাকুন।

You might like also

Comments

1 thought on “পাসপোর্ট বানাতে যা করবেন !”

  1. এর জন্যই একমাত্র এসব দারুণ জোশ পোষ্টের জন্যই আমাদের সকলের “আইটি ওয়ার্ল্ড” আলাদা!!

    Love, Love , Love “আইটি ওয়ার্ল্ড” 🙂

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.