বিশ্বের সবচেয়ে আতঙ্কের হোটেল

0 Comments

চিত্র বিচিত্র ডেস্কঃ


19246094640_b249912baa_b

চারপাশে কাচের দেয়াল। মাথার ওপর ছাদটাও স্বচ্ছ কাচের। ভোরবেলা সূর্য বা রাতের তারা কারোরই ঘরে ঢুকতে নেই মানা। বিছানায় শুয়ে মনে হবে যেন আকাশের বুকেই শুয়ে রয়েছেন। এমন একটি ঘরে থাকতে পারলে কেমন হবে?

এতক্ষণ যা শুনলেন তা মোটেও কোনো কল্পনা বা স্বপ্ন নয়। পেরুর একটি উপত্যকার চারশ’ ফুট উঁচুতে তৈরি স্কাইলজে বসে সূর্যের আলো বা জোছনায় স্নান দুটোই করতে পারবেন। সঙ্গে উভভোগ করতে পারবেন নিচে অবস্থিত ইনকাদের হারানো শহরের প্রাণকেন্দ্রের রহস্যময় সৌন্দর্য।

গাইয়া অ্যাডভেঞ্চার ট্যুরিজমের অধীনে দু’টি স্থানে রয়েছে এমন পোর্টালেজ হোটেল। একটি অ্যাঙ্গেলসি, হলি আইল্যান্ডের গোগার্থের সমুদ্র তীরবর্তী। অন্যটি স্নোডোনিয়ার বিট্যুস-ওয়াই- কোয়েডের নিকটবর্তী পর্বতের খাঁড়া বাধে।

পর্বতের চারশ’ ফুট উঁচুতে অবস্থিত এ হোটেলটিকে বলা যায় বিশ্বের সবচেয়ে আতঙ্কজনক আবাসিক হোটেল।

ন্যাচারাল ভিভ স্কাইলজে রয়েছে তিনটি ক্যাপস্যুল স্যুট। এক একটি লজে মোট আটজন ব্যক্তি রাত কাটাতে পারবেন। লম্বালম্বিভাবে ঝোলানো এ ক্যাপস্যুল স্যুটগুলো প্লেন তৈরির অ্যালুমিনিয়াম ও বিরূপ আবহাওয়া প্রতিরোধকারী পলিকার্বোনেট দিয়ে তৈরি।

বাতাস চলাচলের জন্য রয়েছে ছয়টি জানালা ও চারটি বায়ু চলাচলের নল। দৈর্ঘ্যে ২৪ ফুট ও প্রস্থে আট ফুট আকারের প্রতিটি লজে রয়েছে চারটি বিছানা, একটি ডাইনিং রুম ও একটি বাথরুম। লজে প্রবেশ করার জন্য ক্রাফটের ওপরের অংশে ঢাকনার মতো প্রবেশপথ।

ভালোভাবে থাকার জন্য কোনো কিছুর কমতি নেই এখানে। উন্নতমানের ম্যাট্রেস, বালিশ, চাদর ও তোষকসহ রয়েছে স্থানীয় শকুনদের দৃষ্টি এড়াতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা।

এবার আসি খাবার-দাবার প্রসঙ্গে। অতিথিদের জন্য রয়েছে ফুল ওয়েলস ব্রেকফ‍াস্ট ও ওয়াইনসহ রাতের খাবারের আয়োজন। যদিও রাতের খাবারে বিলাসিতা করার সুযোগ এখানে নেই। তবে এমন স্থানে ভাপে সেদ্ধ মাংস ও সবজি খুব একটা খারাপ নয়। আরও রয়েছে খাবার গরম করার জন্য স্টোভ।

পোর্টালেজ হোটেলের আইডিয়াটা এসেছে মূলত টমি কাল্ডওয়েল ও কেভিন জর্জসনের কাছ থেকে। ক্যালিফোর্নিয়ায় ইয়োসেমিট ন্যাশনাল পার্কের এল ক্যাপ্টেন পর্বতে তিন হাজার ফুট ওপরে ওঠ‍ার সময় তারা ক্যানভাস স্লিপ প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করেন।

এই আকাশচুম্বী হোটেলের সংগঠক স্যাম ফার্নসোর্থ জানান, হোটেলটি তাদের জন্য, যারা ভিন্নমাত্রিক কিছু করতে পছন্দ করেন। জায়গাটি প্রথম অদ্ভ‍ুত মনে হলেও পরে এটা সত্যিই আরামদায়ক ও মজার অভিজ্ঞতায় পরিণত হবে।

তিনি আরও জানান, এই গ্রীষ্মে ইতোমধ্যেই পোর্টালেজ হোটেল বুক হয়ে গেছে। আবার ভ্যালেন্টাইনের উপহার হিসেবে কিনে নিয়েছেন অনেকেই।

এখানে থাকতে হলে প্রতি রাত খরচ পড়বে জনপ্রতি চারশ’ ৫০ পাউন্ড অর্থাৎ, বাংলাদেশি টাকায় ৫৫ হাজার ৫০ টাকা। আর দম্পতিদের জন্য পাঁচশ’ পাউন্ড অর্থাৎ, বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৬১ হাজার দুশ’ টাকা।

তবে এই স্কাই লজে থাকার জন্য অভিজ্ঞ পর্বতারোহীদেরকেই আহ্বান জানাচ্ছেন কর্তৃপক্ষ।


You might like also