সমাধানের আশ্বাসে মুক্ত বাংলালিংক সিটিও, রোববার আলোচনা

No Comments

চাকরিচ্যুত কর্মীর বিষয়ে আলোচনার মাধ্যমে সমাধানের আশ্বাস দিয়ে অবরুদ্ধ অবস্থা থেকে মুক্ত হয়েছেন বাংলালিংকের চিফ টেকনিক্যাল অফিসার (সিটিও) পেরিহান এলহামি। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে গুলশানে অপারেটরটির প্রধান কার্যালয়ের তৃতীয় তলা ও ভবনের সামনে থেকে কর্মীরা তাদের অবস্থান তুলে নিলে পেরিহান এলহামি বেরিয়ে যান।

banglalink1

বাংলালিংক এমপ্লয়িজ ইউনিয়নের সভাপতি উজ্জ্বল পাল টেকশহরডটকমকে জানান, আলোচনার মাধ্যমে রোববার বিষয়টি সমাধানের আশ্বাসে রাত ৩টার দিকে অবস্থান তুলে নেয়া হয়।

বৃহস্পতিবার বিকালে গ্রাহকের বিচারে দ্বিতীয় মোবাইল ফোন অপারেটরটির ‘নেটওয়ার্ক ডেপ্লয়মেন্ট’ বিভাগের কর্মী শরিফুল ইসলামকে চাকরিচ্যুতির নোটিশ দেয় কর্তৃপক্ষ। এ সংবাদ জানাজানি হলে রাত ৮টার দিকে বেশ কিছু কর্মী একজোট হয়ে গুলশানে অপারেটরটির প্রধান কার্যালয়ে তিন তলায় অবস্থান নেয়। এতে সিটিওকে অবরুদ্ধ হয়ে পড়েন।

এর পর আরও কর্মীরা জড়ো হতে শুরু করেন। রাত ১২টা নাগাদ দুই শতাধিক কর্মী অবস্থান নেয়। এদের অধিকাংশই রাত ৩ টা পর্যন্ত অবস্থান নিয়ে ছিলেন।

রাতে গুলশান থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে আলোচনার চেষ্টা চালায়। শেষ পর্যন্ত পুলিশ ও বাংলালিংকের উর্ধ্বতন কর্মকতাদের উপস্থিতিতে সিটিও রোববার বিষয়টি আলোচনার মাধ্যমে সমাধানের আশ্বাস দিলে কর্মীরা অবস্থান তুলে নেন।

banglalink

বাংলালিংক এমপ্লয়িজ ইউনিয়নের নেতারা জানান, শরিফুল ইউনিয়নের সদস্য ও সক্রিয় কর্মী। তাদের নবগঠিত ইউনিয়ন নিবন্ধনের অপেক্ষায় আছে। নিবন্ধনের আবেদন নিস্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত আইন অনুযায়ী এর কোনো সদস্যকে চাকরিচ্যুত করা যাবে না বলে তারা দাবি করেন।

শরিফুল টেকশহরডটকমকে জানান, “কোনো কারণ না জানিয়ে বৃহস্পতিবার এক মাসের সময় দিয়ে কর্তৃপক্ষ অব্যাহতির নোটিশ দিয়েছে। এটা কর্তৃপক্ষের অন্যায় আচরণ।”

কর্মীদের অধিকার আদায়ে গত ২৯ জানুয়ারি ‘বাংলালিংক এমপ্লয়িজ ইউনিয়ন’ গঠন করা হয়। ইতোমধ্যে অপারেটরটিতে কর্মরত ৭১৯ জন কর্মী এতে যোগ দিয়েছেন। এর মধ্যে নারী কর্মী রয়েছেন ৭২ জন।

বাংলালিংকে মোট কর্মীর সংখ্যা ২ হাজার ৮২ জন, যেখানে ৩২২ জন নারী কাজ করছেন।

গত রোববার ইউনিয়নের নিবন্ধনের জন্য শ্রম পরিচালক বরাবরে আবেদন করেন সংগঠনের সভাপতি উজ্জ্বল পাল ও সাধারণ সম্পাদক মো. বখতিয়ার হোসেন।


আব্দুর রহিম আইটি ওয়ার্ল্ডের একজন লেখক, সম্পাদক এবং উপদেষ্টা। বর্তমানে তিনি ডিপ্লোমা ইন কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ছেন। মূলত তিনি ব্লগিং , প্রোফেশনাল ওয়েব ও গ্রাফিক্স ডিজাইন করে থাকেন। তাকে ফেসবুকে পাবেন।

You might like also

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.