কম্পিউটার চালু হতে সময় লাগে? নিন বিশেষজ্ঞের পরামর্শ

No Comments

আগের দিনের টেলিভিশন চালু করার পর বেশ কিছুক্ষণ সময় লাগতো ছবি আসতে। ডায়াল-আপ মডেমগুলোরও একই অবস্থা ছিল। একসময় ডস মোডের কম্পিউটারগুলোও চালু হতে সময় লাগতো। কিন্তু আধুনিক উইন্ডোজ কম্পিউটারগুলো খুব দ্রুত চালু হয়ে যায়। কিন্তু যদি আপনার কম্পিউটার চালু হতে বেশ কয়েক মিনিট সময় লেগে যায়, তবে একে দ্রুতগতির করতে নিন বিশেষজ্ঞের পরামর্শ। ১. কম্পিউটার চালু হতে সময় নেওয়ার কারণ হলো ধীরগতির হার্ডড্রাইভ থেকে দ্রুতগতির র‌্যামের দিকে তথ্য চলাচল। যত বেশি তথ্য প্রবাহ ঘটবে তত সময়ের প্রয়োজন হবে। কম্পিউটার পুরনো হতে থাকলে তথ্য প্রবাহের গতি দুর্বল হয়ে পড়ে। কাজেই তথ্যের পরিমাণ কমিয়ে আনতে হবে।

সবচেয়ে ভালো বুদ্ধি হলো, কম্পিউটার চালু হতে স্টার্টআপ প্রোগ্রামের সংখ্যা কমিয়ে আনতে হবে। সাধারণ কম্পিউটারের বহু প্রোগ্রাম শুরুতেই চালু হয়ে থাকে। এটি বন্ধ করতে হবে। বন্ধ করতে স্টার্টমেনু থেকে অল প্র্রোগ্রামস এবং সেখানে থেকে স্টার্টআপে যান। গুরুত্বপূর্ণ নয় এমন প্রোগ্রামগুলো সেখান থেকে মুছে নিন। এতে গতি অনেক বেড়ে যাবে এবং দ্রুত চালু হবে। ২. কিছু প্রোগ্রাম রয়েছে যা প্রথমেই চালু হওয়া আপনার জন্যে প্রয়োজনীয়। কিন্তু এগুলো নিয়ে হয়তো কাজ করার প্রয়োজন নেই। ‘স্টার্টআপ ডিলেয়ার’-এর মতো প্রোগ্রাম এসব স্টার্টআপ প্রোগ্রামগুলোকে একটি একটি করে চালু করে। অর্থাৎ সবগুলোকে একযোগে চালু করে না। এতে আলাদাভাবে একটি করে প্রোগ্রাম দ্রুত হয়তো চালু হবে না। কিন্তু এগুলো কাজের জন্যে দ্রুত প্রস্তুত হয়ে যাবে। তবে দেখে নিত নিতে হবে যে, সিকিউরিটি সফটওয়্যার যেন সবার আগে চালু হয়। ৩. নতুন এটি কম্পিউটার স্বাভাবিকভাবেই দ্রুত চালু হবে।

কারণ এর নতুন সব হার্যওয়্যার অনেক দ্রুতগতির। যদি কম্পিউটারটি পুরনো হয়ে থাকে তবে আপগ্রেড করে নিন। আগেই বলা হয়েছে, হার্ডড্রাইভটি ধীরগতির হলে তথ্য প্রবাহ ধীর হবে। তাই একটি দ্রুতগতির শক্তিশালী হার্ডড্রাইভ কিনে নিন। এসএসডি হার্ডড্রাইভগুলো নির্ভরযোগ্য ও দ্রুতগতির। তবে দাম অন্যান্যগুলোর চেয়ে একটু বেশি। এদের দাম কমছে ধীরে ধীরে। যদি নতুন একটি কম্পিউটার কিনতে চান তবে সবকিছু আধুনিক মডেলটি কেনার চেষ্টা করুন। বোনাস : যদি পুরনো কম্পিউটার দিয়েই কাজ চালাতে চান তবে একে শাট ডাউন করার প্রয়োজন নেই। বিদ্যুৎ বিল বাড়বে বা কম্পিউটার নষ্ট হয়ে যাবে ইত্যাদি ভুল ধারণার ইতি ঘটেছে অনেক আগেই। চালু থাকার অর্থ হলো, কম্পিউটারটি কাজের জন্যে প্রস্তুত।

সূত্র : ফক্স নিউজ


আমি খুব ক্ষুদ্র। টেকনোলজি জগৎ অনেক ভাললাগে তাই ছারতেই পারিনা । নতুন কিছু নিয়ে আপনাদের কাছে বার বার আসি নতুন কিছু দেয় চেষ্টা করি। ভালবাসি টেকনোলজিকে। ভালবাসি দেশকে।

You might like also

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.