মেগাপিক্সেল কি? মোবাইলের ক্যামেরার জন্য এটা কত গুরুত্ব পূর্ণ?

No Comments

বন্ধুরা আমরা যদি কোন ফোনের ক্যামেরা নিয়ে কথা বলি তাহলে পথমে চলে আসে মেগাপিক্সেলের কথা, যে এই ফোনে 13 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা আর ঐ ফোনে 16 মেগাপিক্সেল
যদি কখনও আমাদের বন্ধুদের সাথে কথা বলি তবে এমন বলি যে আমার মোবাইলে 16 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা তোমার কত মেগাপিক্সেল ? এত কিছুর পিছে আপনি কি কখন জানতে চেয়েছেন মেগাপিক্সেল কি? মেগাপিক্সেল এর মানে কি হয় ?

 

আজ আমি বিস্তারিত বলার চেষ্টা করব!!
মেগাপিক্সেল এর মূলে রয়েছে পিক্সেল। তাই মেগাপিক্সেল সম্পর্কে জানতে হলে আগে আপনাকে পিক্সেল সম্পর্কে জানতে হবে। আর পিক্সেল সম্পর্কে বলতে গেলে এমনভাবে বলা যায় যে আমরা মনিটরে যা দেখি তা কতকগুলে ডট বা বিন্দুর সমষ্টি আর এ ডটই হল পিক্সেল।

 

মেগা মানে হচ্ছে মিলিয়ন। অর্থ্যৎ মেগাপিক্সেল হল মিলিয়ন ডট বা বিন্দু । এই রকম মিলিয়ন পিক্সেল মিলে তৈরি করে একটি ছবি।
১০ মেগাপিক্সেলের একটা ছবি তে থাকে ১০ মিলিয়ন পিক্সেল। আর ১৪ মেগাপিক্সেল ছবিতে থাকে ১৪ মিলিয়ন পিক্সেল।
এখন আপনি যদি ১০ মেগাপিক্সেল এর ক্যামেরা দিয়ে লান্ডস্কেপ ছবি তোলেন তাহলে ঐ ছবির দৈর্ঘ্যঃ ২৫৯২ পিক্সেল এবং প্রস্থঃ ৩৮৮৮ পিক্সেল হবে তেমনি, ১৪ মেগাপিক্সেল এর ছবিটির সাইজ হবেঃ দৈর্ঘ্যঃ ৩১০৪ পিক্সেল এবং প্রস্থঃ ৪৬৭২ পিক্সেল। আবার আপনি দৈর্ঘ্য আর প্রস্থ গুন করলেই পেয়ে যাবেন ছবিটির মেগাপিক্সেল সংখ্যা । যেমন :

 

২৫৯৮*৩৮৮৮=১০,০৭৭,৬৯৬ পিক্সেল = ১০ মেগাপিক্সেল
৩১০৪*৪৬৭২=১৪,৫০১,৮৮৮ পিক্সেল = ১৪.৫ মেগাপিক্সেল
অর্থ্যাৎ যত বেশী পিকে্সল তত বড় ছবি ।

 

এখন আপনি যদি আপনার ছবির দৈর্ঘ্য প্রস্থ মানে আপনার ছবি যদি বড় করতে চান তাহলে বেশি পিক্সেল এর ক্যামেরা নিতে হবে।
এখন প্রশ্ন হতে পারে যে কত সাইজ প্রিন্ট করতে গেলে কত  মেগাপিক্সেল দরকার ?
ত মেগাপিক্সেল যদি ইঞ্চিতে হিসাব করেন তাহলে
2.0 ——– 4 x 6 ইঞ্চি
3.0 ——– 5 x 7  ইঞ্চি
4.0 ——– 8 x 10 ইঞ্চি
5.0 ——– 8 x 12 ইঞ্চি
6.0 ——– 9 x 12 ইঞ্চি
8.0 ——– 11 x 14 ইঞ্চি
10.0 ——– 12 x 16 ইঞ্চি
12.0 ——– 16 x 20 ইঞ্চি
14.0 ——– 18 x 24 ইঞ্চি
ইঞ্চি পাবেন।

 

এখন আপনি যদি 4x 6 ইঞ্চি আকারে ছবি প্রিন্ট করতে চান তাহলে ২ মেগাপিক্সেল আর ১৪ মেগাপিক্সেল একি এ পিকাচার একি হবে। তবে হ্যাঁ । এই পিক্সেল কি DSLR ক্যামেরার নাকি মোবাইলের? DSLR  এবং মোবাইল এর  ক্যামেরার পিক্সেল একসাথে তুলনা করা যাবে না।

 

কারন হচ্ছে যে, DSLR এর পিক্সেল বা ডটগুলো বড়  থাকে অন্য দিকে মোবাইলে পিক্সেল গুলো ছোট থাকে যার কারনে এইটা অনেক কম আই এস ও () তে ছবি তুলে যার কারনে ছবি তে নইএস বেশি থাকে। এই ছোট সেন্সর এর জন্য মোবাইলের ইমেজ কুয়ালিটি ডি এস এল আরের চেয়ে খারাপ হয়ে যাই।

আরো টেক ভিডিও দেখার জন্য ভিজিট করুন : TechAbdur Youtube channel এ

 


You might like also

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.